সুপার কম্পিউটার কি ? সুপার কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য ও ব্যবহার

 কম্পিউটার কি এই জিনিসটা আমরা কমবেশি প্রায় প্রত্যেকেই জানি। কিন্তু কম্পিউটারের একটি ভাগ হচ্ছে সুপার কম্পিউটার, এই নামটা কিন্তু আমরা অনেকেই শুনেনি ।

তো আমরা যে computer গুলো ব্যবহার করি সেগুলো সাধারণ কম্পিউটার , কিন্তু সুপার কম্পিউটার হচ্ছে অতি দ্রুততা সম্পন্ন এবং ব্যয়বহুল কম্পিউটার । 

সুপার কম্পিউটার কি ? সুপার কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য ও ব্যবহার
what is super computer in bangla

তো আপনি যদি সুপার কম্পিউটার সম্পর্কে তেমন কিছু না জেনে থাকেন তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য, আজকের এই ব্লগ পোস্টে আলোচনা করব সুপার কম্পিউটার কি (super computer ki), সুপার কম্পিউটার বৈশিষ্ট্য, সুপার কম্পিউটার ব্যবহার, সুপার কম্পিউটার এর উদাহরণ কি ইত্যাদি বিষয়। 

চলুন তাহলে বেশি কথা না বলে সুপার কম্পিউটার বলতে কি বুঝ য় এ বিষয়টি জেনে নিই। 

সুপার কম্পিউটার কি ? (What is super computer in Bengali) : 

সুপার কম্পিউটার হচ্ছে ব্যয়বহুল এবং দ্রুতগতিসম্পন্ন (fast) কম্পিউটার । এটিই হচ্ছে বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী (powerful) কম্পিউটার। এই কম্পিউটার সাধারণ কোন কাজে ব্যবহার করা হয় না। বৈজ্ঞানিক গবেষণা, প্রশাসনিক কর্মকান্ড ইত্যাদি কাজের জন্য এই কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়।

সুপার কম্পিউটার আকারে অনেক বড় হয় এবং অনেক লোক একসঙ্গে এই কম্পিউটারের কাজ করতে পারে। সুপার কম্পিউটারে একটি কাজ করার সাথে সাথে আরেকটি কাজ অর্থাৎ multiple কাজ একসঙ্গে দ্রুতগতিতে করা সম্ভব। 

সুপারকম্পিউটারে কয়েক হাজার প্রসেসর থাকে এবং প্রতি সেকেন্ডে কোটি কোটি এবং ট্রিলিয়ন গণনা করতে পারে। কিছু সুপার কম্পিউটার একশো কোয়াড্রিলিয়ন FLOPS পর্যন্ত পারফর্ম করতে পারে।

বিশ্বের প্রথম সুপার কম্পিউটার হল CDC 6600 যেটি 1964 সালে তৈরি করা হয়েছিল।

সুপার কম্পিউটার কাকে বলে ? (Supercomputer in bangla) :  

ব্যয়বহুল, অতি দ্রুততা সম্পন্ন ,শক্তিশালী যে কম্পিউটার যেটি বিশাল পরিমাণ ডেটাবেস (database) পরিচালনা করতে পারে, প্রচুর পরিমানে গণনার কাজ করতে পারে এবং একসাথে অনেকগুলো কাজ দ্রুতদের সাথে করতে পারে তাকে সুপার কম্পিউটার বলে।

সুপার কম্পিউটার এর উদাহরণ 

সুপার কম্পিউটার তৈরি করে এমন কিছু জনপ্রিয় কোম্পানির নাম হলো Lenovo, IBM, DELL ইত্যাদি। 

আর সুপার কম্পিউটারের উদাহরণ অর্থাৎ সুপার কম্পিউটার নাম হলো Belle, Deep Blue, and Hydra, Gravity Pipe, MDGRAPE-3, ইত্যাদি।

সুপার কম্পিউটারের ইতিহাস | History of supercomputer : 

সুপার কম্পিউটার আবির্ভাব 1960 দশকে ঘটে । CDC 6600 বিশ্বের প্রথম কম্পিউটার যেটি 1964 সালে তৈরি করা হয়েছিল, এটিকে vacuum tube এর পরিবর্তে transistor ব্যবহার করা হয়। 

বিশ্বের দ্রুততম সুপার কম্পিউটার ছিলো Sunway TaihuLight যেটি চীনের প্যারালাল কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং এবং টেকনোলজির জাতীয় গবেষণা কেন্দ্র দ্বারা তৈরি করা হয়েছিল।

বর্তমানে এই উন্নত প্রযুক্তির যুগে প্রত্যেকটি দেশে সুপার কম্পিউটার ছড়িয়ে গেছে। ভারতের তৈরি কিছু সুপার কম্পিউটার আছে যেমন PARAM Siddhi-AI, Param Yuva II, Pratyush, Mihir ইত্যাদী।

সুপার কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য :

চলুন তাহলে নিচে সুপার কম্পিউটার বৈশিষ্ট্য গুলি আলোচনা করি

• সুপার কম্পিউটার দ্রুত তথ্য প্রসেসিং করতে সক্ষম হয়।

• সুপার কম্পিউটারে 64 বিট বা তার থেকে বেশি মাইক্রোপ্রসেসর চিপ ব্যবহার করা হয়।

• সুপার কম্পিউটারের প্রসেসিং স্পিড 100 Million instructions per second (MIPS) পর্যন্ত হয়ে থাকে।

• সুপার কম্পিউটার হলো বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী এবং মূল্যবান কম্পিউটার ।

• সুপার কম্পিউটার এ  data storage capacity সব থেকে বেশি।

• সুপার কম্পিউটারে অনেকগুলি প্রসেসর থাকে এর ফলে একসাথে অনেক কাজ (multiple tasks) করা যায় ।

• এই ধরনের কম্পিউটার গুলি অল্প সময়ে প্রচুর পরিমাণ গণনা করতে পারে।

• অনেক ব্যক্তি একই সময়ে super computer অ্যাক্সেস করতে পারে।

সুপার কম্পিউটার ব্যবহার 

চলুন তাহলে নিচে সুপার কম্পিউটার এর ব্যবহার বা সুপার কম্পিউটারের সুবিধা আলোচনা করি 

• Decrypting password এর মাধ্যমে Super Computer সুরক্ষা প্রদান করে, এছাড়া এই কম্পিউটার অনেক সহজে পাসওয়ার্ড এর অনুমান করে নিতে পারে।

• একটি সুপার কম্পিউটার এর শক্তি ও কার্যক্ষমতা সাধারণ কম্পিউটারের তুলনায় অনেক বেশি হয়, এর ফলে দ্রুত তথ্য প্রসেসিং এবং একসাথে অনেক গুলি multiple tasks কাজ করা যায় , এছাড়া অনেক জটিল কাজ অল্প সময়ের মধ্যে করা সম্ভব হয়।

• রিসার্চ (research) এবং ডেভেলপমেন্ট (development) এর ক্ষেত্রে সুপার কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়।

• বর্তমানে অনেক বড় বড় কোম্পানির Super Computer ব্যবহার করে কারণ এটির সাহায্যে অল্প সময়ে অনেক কাজ করা সম্ভব হয়।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেয়ার জন্য সুপার কম্পিউটার অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

• সুপার কম্পিউটারের বিভিন্ন রোগ নির্ণয় (যেমন স্ট্রোক, মস্তিষ্কের আঘাত, রক্ত প্রবাহ ইত্যাদি) ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।

• সামরিক বাহিনী এবং অস্ত্র পরীক্ষার জন্য এই ধরনের কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়।

• বিভিন্ন ধরনের অ্যানিমেশন কাজ এছাড়া অনলাইন গেমিং এর জন্য সুপার কম্পিউটার ব্যবহার করা।

সুপার কম্পিউটারের অসুবিধা

সুপার কম্পিউটার এর অসুবিধা গুলো নিম্নে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো

• supercomputer অনেক  ব্যয়বহুল অর্থাৎ এর দাম অনেক বেশি।

• সুপার-কম্পিউটার সাধারণ কম্পিউটার থেকে আয়তনে অনেক বড় এর ফলে এটি রাখার জন্য অনেকটা জায়গা নেই।

• super কম্পিউটার চালানোর জন্য প্রশিক্ষিত কর্মীর প্রয়োজন হয়। 

• প্রচুর পরিমাণে প্রসেসিং এবং ডিভাইসের লোডের কারণে সুপার কম্পিউটার দ্রুত গরম হয়ে যায়।

• সুপার-কম্পিউটারের চালানোর জন্য প্রচুর বিদ্যুৎ শক্তির প্রয়োজন হয় 

সুপার কম্পিউটারের দাম কত 

সুপার-কম্পিউটারের দাম অনেক বেশি। সাধারণত একটি সুপার কম্পিউটারের দাম 5 লাখ ডলার থেকে 200 মিলিয়ান ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে।

বৈজ্ঞানিক গবেষণা, প্রকৌশল ক্ষেত্রে, সামরিক ক্ষেত্রে এইসব কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়। 

FAQ : 

১. বিশ্বের প্রথম সুপার কম্পিউটারের নাম কি ?

Ans : বিশ্বের প্রথম সুপার কম্পিউটারের নাম হলো CDC 6600 যেটি 1964 সালে তৈরি করা হয়েছিল।

২. বিশ্বের দ্রুততম সুপার কম্পিউটারের নাম কি ?

Ans: Frontier

৩. সুপার কম্পিউটার কে আবিষ্কার করেন ? 

Ans: Seymour Cray ও Boris Babayan

৪. ভারতের প্রথম সুপার কম্পিউটারের নাম কি ?

Ans : পরম 8000 

তো বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেল থেকে সুপার কম্পিউটার কী | সুপার কম্পিউটার কে আবিষ্কার করেন | সুপার কম্পিউটারের কাজ কি ইত্যাদি বিষয় জানতে পারলেন।

super computer কি এই নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি কেমন লাগলো অবশ্যই নিচে থাকা কমেন্ট বক্সে আপনাদের মতামত জানাতে পারেন ধন্যবাদ। 
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url