অ্যানালগ কম্পিউটার কি ? এনালগ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য


 আকার আকৃতি, কাজের ধরন, গতি প্রকৃতি ও কার্যক্ষমতার উপর ভিত্তি করে কম্পিউটারকে তিন ভাগে ভাগ করা হয় এনালগ কম্পিউটার, ডিজিটাল কম্পিউটার এবং হাইব্রিড কম্পিউটার। 

তো আজকের এই আর্টিকেলে অ্যানালগ কম্পিউটার সম্পর্কে বিস্তারিত বিষয় আলোচনা করব, যেমন এনালগ কম্পিউটার কাকে বলে | এনালগ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য | এনালগ অর্থ কি (analog computer meaning in bengali) ইত্যাদি।

অ্যানালগ কম্পিউটার কি ? এনালগ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য
Analog computer in bangla 

তো আপনি যদি এনালগ কম্পিউটার কি (Analog computer meaning in Bengali) এ বিষয়ে কোন কিছু না জেনে থাকেন তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য।

চলুন তাহলে বেশি কথা না বলে এনালগ কম্পিউটার বলতে কি বুঝ এটি জেনে নিই। 

অ্যানালগ কম্পিউটার কি | What is Analog computer in Bengali 

এনালগ কম্পিউটার এমন এক ধরনের কম্পিউটার যা ভৌত পরিমাণ, বৈদ্যুতিক তারের ভোল্টেজের উঠানামা, কোন পাইপের ভেতরে গ্যাসীয় বা তরল পদার্থের চাপের তারতম্য ইত্যাদি পরিমাপ করার জন্য এই কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়।

অ্যানালগ কম্পিউটারগুলি ভৌত পরিমানে ডেটা সঞ্চয় করে এবং পরিমাপের সাহায্যে গণনা সম্পাদন করে। এই কম্পিউটার গুলি ডিজিটাল কম্পিউটার থেকে বেশ আলাদা ।

এনালগ কম্পিউটারের ডেটা অবিচ্ছিন্ন আকারে ব্যবহার করা হয়, অর্থাৎ ডেটা সব সময় পরিবর্তিত হয়। রাসায়নিক, পেট্রোলিয়াম ও খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে এনালগ কম্পিউটার প্রচুর পরিমাণে ব্যবহার করা হয়। গাড়ির স্পিড মিটার হলো এনালগ কম্পিউটারের উদাহরণ।

এনালগ কম্পিউটার কাকে বলে ?

 ভৌতো পরিমাপ, পাইপের ভেতরে গ্যাস বা তরলের পরিমাপ, বৈদ্যুতিক তারের ভোল্টেজ ওঠানোর, বায়ু প্রবাহ ও চাপ পরিবর্তিত হওয়া ইত্যাদি পরিমাপ করার জন্য যে কম্পিউটার ব্যবহার করা হয় তাকে এনালগ কম্পিউটার বলে। 

আরো সহজ ভাষায় বলতে গেলে যে কম্পিউটারের সাহায্যে পরিবর্তনশীল কোন বস্তু বা পদার্থের পরিমাপ নির্ণয় করা হয় তাকে এনালগ কম্পিউটার বলে।

এনালগ কম্পিউটারের উদাহরণ

আপনারা নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন যে একজন রোগীকে যখন হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয় তখন এনালগ কম্পিউটারের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয় যেমন ধরুন, রোগীর তাপমাত্রা কত, রোগীর জ্বর আছে কিনা, পেশেন্ট এর bp কত ইত্যাদি পরীক্ষা করার জন্য এই কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়।

এছাড়া অ্যানালগ কম্পিউটারের বেশ কিছু উদাহরণ হল slide rules, গাড়ির স্পিডো মিটার, operational amplifiers, mechanical integrators ইত্যাদি।

এনালগ কম্পিউটার কত প্রকার ও কি কি ?

এনালগ কম্পিউটার প্রধানত পাঁচ প্রকার

            ১. Slide Rule 

            ২. Differential Analysers 

            ৩. Mechanical Analog Computers 

            ৪. Electronic Analog Computers 

            ৫. The Castle Clock 

এই প্রত্যেকটি ভাগ নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো

১. Slide Rule  : 

বিজ্ঞানী William Oughtred ১৬০০ শতকের প্রথম দিকে Slide Rule রোল আবিষ্কার করেন। এটি খুবই সাধারণ একটি এনালগ কম্পিউটার। অনুমানমূলক মৌলিক গাণিতিক গণনার জন্য এই ডিভাইসটি ব্যবহার করা হয়।

এটি প্রথম দিকে শুধুমাত্র গুণ এবং ভাগের জন্য ব্যবহার করা হতো তারপর, লগারিদম এবং ত্রিকোণমিতি ইত্যাদি তে ব্যবহার করা হয়। তবে এটি সাধারণত যোগ বা বিয়োগ এর জন্য ডিজাইন করা হয়নি।

২. Differential Analysers  : 

১৯৩০ সালের প্রথম দিকে Vannevar Bush এবং Harold Hazen এটি আবিষ্কার করেন । এটি এক ধরনের বিখ্যাত যান্ত্রিক এনালগ computer যেটি  ডিফারেনশিয়াল সমীকরণ সমাধান করতে ব্যবহার করা হয়।

 তথ্য প্রক্রিয়াকরণ এবং গণনা করার জন্য এটি ব্যবহার করা হতো। বর্তমান কম্পিউটারের থেকে এই মেশিনগুলো ছিল আকারে অনেক বড়।

৩. Mechanical Analog Computers  : 

এই ধরনের কম্পিউটার গুলি যা কিছু পরিমাপ করে আমাদেরকে আউটপুট দেয় যেমন গাড়ির speedometer, গাড়ির গতি পরিমাপ করার জন্য এটি ব্যবহার করা হয় 

এছাড়া Mechanical Analog Computer এর কিছু উদাহরণ হল mechanical clocks, mechanical calculators, mechanical counters ইত্যাদি।

৪. Electronic Analog Computers  :

ইলেকট্রনিক অ্যানালগ কম্পিউটারগুলি কম্পিউটিং এবং সামরিক প্রযুক্তির জন্যও ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।

আধুনিক অ্যানালগ computer এর উপাদানগুলির যান্ত্রিক মিথস্ক্রিয়া না করে শারীরিক ঘটনা অনুকরণ করে বিভিন্ন প্রতিরোধক এবং ক্যাপাসিটরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত বৈদ্যুতিক সংকেত ব্যবহার করে। এই কম্পিউটারের উদাহরণ হল voltmeter 

৫. The Castle Clock  : 

এই ডিভাইসগুলি বর্তমান ঋতুর উপর ভিত্তি করে দিনের পরিবর্তনশীল  দৈর্ঘ্য সেট করার অনুমতি দেয়।

The Castle Clock ডিভাইস টি আল-জারাজি দ্বারা তৈরি করা হয়েছিল। ধারণা করা হয় এটি সবথেকে পুরনো এনালগ কম্পিউটার।

এনালগ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য 

চলুন তাহলে এনালগ কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য কি কি সেটি নিচে বিস্তারিত আলোচনা করি 

• এই কম্পিউটার গুলি সংখ্যা ও পরিমাণ নির্ণয় নিয়ে কাজ করে থাকে।

• এনালগ কম্পিউটারে মেমোরি (storage) সীমিত।

• অ্যানালগ কম্পিউটার সাধারনত ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে বা উঠানামা করে ব্যবহার করা হয়।

• Analog computer আউটপুট সংরক্ষণ বা সেভ করতে পারেনা।

• এই কম্পিউটার যে ডেটা গুলি পরিমাণ করে সময়ের সাথে সাথে সেগুলো পরিবর্তন হতে পারে।

• এ কম্পিউটার গুলি জটিল কাজ এবং বিভিন্ন গাণিতিক সমস্যা সমাধান করতে পারে।

• এই ধরনের কম্পিউটার গুলি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন হয়ে থাকে।

এনালগ কম্পিউটারের সুবিধা

এনালগ কম্পিউটারের ব্যবহার এর সুবিধা নিচে আলোচনা করা হলো।

• এই কম্পিউটারের প্রধান সুবিধা হল এর গতি খুব বেশি এবং কম সময়ের মধ্যে আউটপুট প্রদান করে।

• এনালগ কম্পিউটার রিয়েল টাইম (real time) ডাটা দেখায়।

• এই কম্পিউটারের দাম তুলনামূলকভাবে সস্তা।

• এই কম্পিউটারে ইনপুট এবং আউটপুটকে ডিজিটাল আকারে রূপান্তরিত করার জন্য transducer এর প্রয়োজন হয় না।

• Analog computer একসাথে অনেকগুলো ডেটা গণনা করতে পারে।

এনালগ কম্পিউটারের অসুবিধা

এই কম্পিউটারের যেমন সুবিধা রয়েছে ঠিক তেমনি কিছু অসুবিধা রয়েছে সেগুলো নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো

• অ্যানালগ কম্পিউটার সব সময় সঠিক ফলাফল দেয় না।

• এর বিদ্যুৎ খরচ অনেক বেশি।

• অ্যানালগ কম্পিউটার এর ডেটা সংরক্ষণে ক্ষমতা খুব কম।

তো বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেল থেকে এনালগ কম্পিউটার সম্পর্কে বিভিন্ন রকম তথ্য জানতে পারলেন যেমন এনালগ কম্পিউটার কী (analog computer) | এনালগ কম্পিউটারের সুবিধা | এনালগ ও ডিজিটাল কম্পিউটারের পার্থক্য কি ইত্যাদি বিষয়।

অ্যানালগ কম্পিউটার কাকে বলে এই নিয়ে আজকে আর্টিকেলটি কেমন লাগলো অবশ্যই নিচে থাকা কমেন্ট বক্সে আপনাদের মতামত জানাতে পারেন ধন্যবাদ।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url