হ্যাশট্যাগ কি | হ্যাশট্যাগ কিভাবে ব্যবহার করে | What is hashtags in Bangla

 বর্তমানকালে আমরা ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, ইউটিউব ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম ব্যবহার করি। তো এই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে কখনো কিছু পোষ্টের লেখার আগে একটি চিহ্ন ব্যবহার করা হয় যেটির নাম হচ্ছে হ্যাশট্যাগ (#) ।

হ্যাশট্যাগ কি | হ্যাশট্যাগ কিভাবে ব্যবহার করতে হয়
Hashtag meaning in bangla 

2007 সালে twitter সর্বপ্রথম হ্যাশট্যাগ ফিচারটি নিয়ে আসে। তারপর ধীরে ধীরে প্রায় সব সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হ্যাস ট্যাগ ব্যবহার শুরু করে।

তো আপনারা অনেকেই জানেন না এই হ্যাশট্যাগ কি , তো আপনার যদি এই আর্টিকেলটি ধৈর্য ধরে সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে হ্যাশট্যাগ সম্পর্কে বিস্তারিত বিষয় জানতে পারবেন যেমন হ্যাশট্যাগ কী (hashtag ki)| হ্যাশট্যাগ কিভাবে করতে হয়|হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহারের সঠিক নিয়ম হ্যাশট্যাগ মিনিং ইন বাঙ্গালী ইত্যাদি বিষয়।

চলুন তাহলে বেশি কথা না বলে হ্যাশট্যাগ কাকে বলে এ বিষয়টি জেনে নেই।

হ্যাশট্যাগ কি | What is hashtag in Bengali

হ্যাশ ট্যাগ হলো এক ধরনের কিওয়ার্ড। যে কিওয়ার্ডের আগে অবশ্যই # চিহ্ন থাকতে হবে। # চিহ্ন দিয়ে (কোনরকম স্পেস ছাড়াই ) তার সাথে যে কোন শব্দ লিখি সেটাই হলো হ্যাশট্যাগ।

অর্থাৎ হ্যাস এর সঙ্গে যে শব্দটা থাকে সেটাকেই বলে হ্যাশট্যাগ। আর বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার ক্ষেত্রে hashtag খুবই গুরুত্বপূর্ণ । 

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম যেমন facebook, instagram, twitter, youtube ইত্যাদি জায়গায় হ্যাস ট্যাগ ব্যবহার করলে সেটা অটোমেটিকলি হয়ে clickable link হয়ে যায় , এইজন্যই মূলত বর্তমানে hashtag খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

হ্যাশট্যাগ মানে কি | hashtag meaning in bengali

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনরকম স্পেস ছাড়াই শব্দ বা অক্ষাংশের আগে # চিহ্ন থাকলে সে শব্দ বাক্যাংশ টাকে হ্যাশট্যাগ বলে। একটি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে নির্দিষ্ট বিষয় সম্পর্কে চিহ্নিত করা হয়। অর্থাৎ hash tag হলো এক ধরনের মেটাডেটা ট্যাগ। আশা করি hashtag meaning কি এ বিষয়টি বুঝতে পারলেন।

হ্যাশট্যাগ কে আবিষ্কার করেন ?

আমেরিকান ব্লগার এবং পণ্য পরামর্শদাতা Chris Messina সর্বপ্রথম হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার করার প্রস্তাব দেন। তিনি 2007 সালে টুইটারে তার একটি টুইট এর মাধ্যমে ব্যবহার করার কথা বলেন।

তারপর থেকে তো hashtag ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। বর্তমানে প্রত্যেকটা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে hashtag ব্যবহার করা হয়।

হ্যাশট্যাগ কেন ব্যবহার করা হয়

হ্যাশট্যাগ বেশিরভাগ সময় সব্দাংশু বা বাক্যাংশ এর শুরুতে ব্যবহার করা হয় কোনরকম স্পেস ছাড়া, এবং পরবর্তীকালে এটি ইন্টার্নাল লিংকে পরিণত হয় যেমন, #mytechnicalangla 

ধরুন আপনি সোশ্যাল মিডিয়াতে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে কোন একটি কমেন্ট করলেন এবং অন্য কোন ব্যক্তি যদি আপনার এই হ্যাশট্যাগ কমেন্ট টি ব্যবহার করে তাহলে কিন্তু খুব সহজেই আপনার নিজস্ব হ্যাশট্যাগ কমেন্টটিতে ক্লিক করলে কতজন ব্যাক্তি আপনার হ্যাশট্যাগ টি ব্যবহার করেছে সেগুলো দেখতে পারবেন। 

এছাড়া কেউ যদি চায় কোন একটি হ্যাশ-ট্যাগ কতজন ব্যবহার করেছে সেটি দেখতে তার জন্য ইউটিউব, ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম বা টুইটারে সার্চ অপশনে গিয়ে আপনি যে হ্যাশট্যাগ টি দেখতে চান সেটি লিখে সার্চ করুন তাহলে কিন্তু খুব সহজে জানতে পারবেন কতজন ব্যক্তি সেটি নিয়ে পোস্ট করেছে।

তো আপনি ধরুন সোশ্যাল মিডিয়াতে Hash tag ব্যবহার করে কোন কিছু পোস্ট করলেন এবং আপনার দেওয়া সেই হ্যাশ-ট্যাগ অন্য কোন ব্যক্তি যদি লিখে সার্চ করে তাহলে আপনার ফটো বা পোস্টটি তাদের সামনে এসে পড়ে এর ফলে আপনার পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে , অর্থাৎ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে আপনার প্রোফাইল, পেজ বা পোষ্টের রিচ বাড়াতে পারেন।

হ্যাশট্যাগ কোথায় ব্যবহার করা হয়

এক এক সোশ্যাল মিডিয়াতে এক এক রকম ভাবে hashtag ব্যবহার করা হয়। যেমন ইউটিউব এর ক্ষেত্রে টাইটেল বা ভিডিও ডেসক্রিপশন বক্সে hashtag ব্যবহার করা হয়।

ফেসবুকের ক্ষেত্রে ফেসবুক বায়ো-সেকশন, short description বা long description, এছাড়া ফেসবুক পোস্টে hashtag ব্যবহার করতে পারেন।

Instagram এর bio তে এবং instagram পোস্টে ব্যবহার করা যায়।

আর টুইটারে ক্ষেত্রে টুইটার bio তে এবং টুইটের মধ্যে হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার করতে পারেন।

হ্যাশট্যাগ ব্যবহারের সঠিক নিয়ম 

চলুন তাহলে এবার হ্যাশ-ট্যাগ ব্যবহারের নিয়ম গুলো জেনে  নিই।

Hash tag ব্যবহার করা ভালো বলে যত করছি তত Hash-tag ব্যবহার করা ঠিক নয়। আপনাকে অবশ্যই আপনার পোস্ট রিলেটেড Hash-tag দিতে হবে। আপনার পোস্ট রিলেটেড ছাড়া অন্য কোন বিষয়ের Hash-tag দিলে কিন্তু হবে না।

 যেমন ফেসবুকে আপনারা সর্বোচ্চ 3-5 টা Hash-tag দিলে ভালো হয়।

ইউটিউব এর ক্ষেত্রে আপনারা টাইটেলে সর্বোচ্চ তিনটে Hash-tag দিতে পারবেন এবং ডেসক্রিপশন বক্সে 5-7 টা Hash-tag দিলে ভালো হয়। 

টুইটারে ক্ষেত্রে 2-3 হ্যাশ-ট্যাগ ব্যবহার করলে ভাল হয়। কারণ টুইটারে character লিমিট থাকে, বেশি বড় করে লিখে পোস্ট করা যায় না। 

কিন্তু ইনস্টাগ্রামে কিন্তু আপনারা অনেক বেশি হ্যাশ-ট্যাগ ব্যবহার করতে পারবেন। অনেক সময় রিসার্চ করে দেখা গেছে instagram এর ক্ষেত্রে 10-12 টা হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা উচিত।

আশা করি আপনারা হ্যাশট্যাগ কিভাবে ব্যবহার করে এ বিষয়টি বুঝতে পারলেন।

সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হ্যাশট্যাগ কোথায় পাবেন

হ্যাশট্যাগ কিভাবে কপি করতে হয় বা জনপ্রিয় হ্যাশট্যাগ ব্যবহার কোথায় পাবো এ বিষয়টি কিন্তু আপনাদের মাথায় ঘুরপাক খায়। জনপ্রিয় ট্রেন্ডিং হ্যাস ট্যাগ খোজার জন্য আপনারা গুগলে গিয়ে সার্চ করবেন hashtag for Facebook বা hashtag for Instagram তারপর বিভিন্ন ওয়েবসাইট দেখতে পাবেন সেসব ওয়েবসাইট থেকে জনপ্রিয় হ্যাস ট্যাগ কপি করতে পারবেন।

এছাড়া টুইটার  এ তো একটি অপশন রয়েছে Twitter trends সেখানে ২৪ ঘন্টার জনপ্রিয় হ্যাস ট্যাগ গুলি দেখা যায়। সেখান থেকে আপনারা খুব সহজে জানতে পারবেন যে কোন কোন হ্যাস ট্যাগ গুলি ট্রেন্ডিং এ চলছে।

 হ্যাশট্যাগের সুবিধা

চলুন তাহলে হ্যাশট্যাগের সুবিধা কি বা হ্যাশট্যাগ কেন প্রয়োজনীয় ওই বিষয়টি জেনে নেই।

• বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন facebook, instagram, twitter ব্যবহার করে আপনার পেইজ বা প্রোফাইলের রিচ বাড়াতে পারবেন।

• হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে আপনার ব্যবসার প্রচার করতে পারবেন। আপনার যে বিজনেস অথবা আপনার ব্র্যান্ডের নামে ব্র্যান্ডেড হ্যাশ-ট্যাগ তৈরি করতে হবে সেটা যদি জনপ্রিয় হয়ে যায় তাহলে আপনাদের ব্যবসার প্রসার ঘটবে।

• আপনি কোন একটি হ্যাস ট্যাগ লিখে সার্চ করলে আপনি একসঙ্গে প্রচুর পোস্টের ফলাফল দেখতে পাবেন অর্থাৎ সেই হ্যাস ট্যাগ ব্যবহৃত প্রত্যেকটি পোষ্ট শো করবে।

•  হ্যাস ট্যাগ ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়াতে কোন ফটো বা ভিডিও ছাড়লে সেটি ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

তো বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনারা হ্যাস ট্যাগ সম্পর্কে বিভিন্ন খুঁটিনাতে বিষয় জানতে পারলেন। যেমন hashtag কি | হ্যাশট্যাগ এর উপকারিতা কি | হ্যাস ট্যাগ কিভাবে করে | হ্যাশ ট্যাগ কত প্রকার | ফেসবুকে হ্যাশট্যাগ কিভাবে করতে হয় ইত্যাদি বিষয়।

হ্যাশট্যাগ বলতে কি বুঝায় নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি কেমন লাগলো অবশ্যই নিচে থাকা কমেন্ট বক্সে আপনাদের মতামত জানাতে পারেন ধন্যবাদ।


Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url