ডেবিট কার্ড কি ? ডেবিট কার্ড খোলার নিয়ম । What is debit card in Bangla

 বর্তমানে গোটা বিশ্ব কিন্তু ধীরে ধীরে ডিজিটালাইজ হচ্ছে। তো এই ডিজিটালাইজ হওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে digital payment (digital payment) ব্যবস্থা। প্রতিটি দেশের সরকার কিন্তু ডিজিটাল পেমেন্ট মাধ্যম চালু করে দিয়েছে। 


ডেবিট কার্ড কি ? ডেবিট কার্ড খোলার নিয়ম
debit card in Bangla 

অনলাইন পেমেন্ট বা ডিজিটাল পেমেন্ট এর জন্য আপনার যে কোন ব্যাংকে একাউন্ট থাকা দরকার । কোন ব্যাংকে একাউন্ট না থাকলে কিন্তু অনলাইনে পেমেন্ট করতে পারবেন না।


যখন আপনি কোন ব্যাংকে নতুন একাউন্ট করতে যাবেন তখন একটি কার্ড এর জন্য আপনাকে ফরম ফিলাপ করতে হয় কিছুদিন পর সে কার্ডটি পোস্ট অফিসের মাধ্যমে আপনাদের বাড়িতে এসে পৌঁছায় । তো এই কার্ডটি হতে পারে এটিএম কার্ড, ডেবিট কার্ড বা ক্রেডিট কার্ড । তো আপনারা এই তিনটির নাম কিন্তু প্রায় প্রত্যেকেই শুনেছেন।



ওই কার্ডটি দেখেই কিন্তু আপনি বুঝতে পারবেন যে এটা এটিএম কার্ড না ডেবিট কার্ড না ক্রেডিট কার্ড । কোন ধরনের কার্ড সেটা ওখানে লেখা থাকে। 


তো আজকের আর্টিকেলে যেটি নিয়ে আলোচনা করব সেটা হচ্ছে ডেবিট কার্ড কি ? ডেবিট কার্ড পাওয়ার উপায়ডেবিট কার্ড নম্বর ইত্যাদি বিষয় নিয়ে। 


আপনি যদি এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়েন ডেবিট কার্ড নিয়ে আপনার মতে কোন দ্বিধা থাকবে না। চলুন তাহলে ডেবিট কার্ড কাকে বলে এই বিষয় টি জেনে নিয়।


ডেবিট কার্ড কি (what is debit card in Bengali) :

 ডেবিট কার্ড হল ব্যাংক দ্বারা প্রদানকৃত একটি কার্ড যেটি সাহায্যে আপনারা টাকা তুলতে এবং জমা করতে পারবেন


এটি এক ধরনের পেমেন্ট কার্ড যেটি ব্যাংকের সঙ্গে লিংক করা থাকে। গ্রাহক ব্যাংকে না গিয়ে যেকোনো ATM মেশিন থেকে টাকা deposit এবং withdra করতে পারবে এছাড়া আপনারা অনলাইনে ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে টাকা পে করে কেনাকাটা করতে পারবেন।


ডেবিট কার্ড কয় প্রকার ও কি কি :

  ডেবিট কার্ড প্রধানত পাঁচ প্রকারের হয়


            ১. Visa debit card

            ২. Master card debit card

            ৩. Platinum debit card

            ৪. Maestro Debit Card

            ৫. Contactless debit cards


১. Visa debit card :  

এটি আমেরিকার একটি কোম্পানি গোটা বিশ্বব্যাপী এই কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন করতে পারবেন। এটি ইন্টারন্যাশনাল ভিসা ডেবিট কার্ড।


২. Master card debit card :

ভিসা ও মাস্টার কার্ডের সেরকম কোনো পার্থক্য নেই। এটিও একটি আন্তর্জাতিক পেমেন্ট কার্ড । দেশের বাইরে এই কার্ডের মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন।


৩. Rupay debit card :

এই কার্ডটি ভারতে মধ্যে সীমাবদ্ধ। এই কার্ডের মাধ্যমে শুধুমাত্র ভারতের টাকা তুলতে বা জমা করতে পারবেন বা অনলাইনে কেনাকাটা করতে পারবেন। ভারতের বাইরে এই কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন না। 


৪. Maestro Debit Card :

  মাস্টারকার্ডের মত এটিও প্রায় একইরকম কার্ড । এই কার্ড ব্যবহার করে সারাবিশ্বে এটিএম এর মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন।


৫. Contactless debit cards : 

এই ধরনের ডেবিট কার্ড গুলো  সোয়াইপ না করে টাকা তোলার অনুমতি দেয়। ভারতে State Bank Axis Bank, HDFC Bank এ ধরনের কার্ড প্রদান করে।


ডেবিট কার্ড করতে কি কি লাগবে ? 

 ডেবিট কার্ড পাওয়ার জন্য কি কি লাগবে  চলুন সেগুলো জেনে নিই


            • voter card

            • Aadhar card

            • PAN card 

            • passport size photo (2 copy)


উপরের এই কয়েকটি ডকুমেন্ট যদি আপনার কাছে থাকে তাহলে আপনারা debit card জন্য আবেদন করতে পারবেন। আর হ্যাঁ আবেদন করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ভারতীয় হতে হবে এবং আপনার বয়স 18 বছরের উর্ধ্বে হতে হবে।


ডেবিট কার্ড খোলার নিয়ম : 

ডেবিট কার্ড পাওয়ার উপায় এর কথা বললে দুটো উপায় আছে  


            ১. online debit card apply

            ২. Offline debit card apply


১. online debit card apply : 

আপনার ব্যাংকে একাউন্ট আছে অথচ ডেবিট কার্ড নাই সেক্ষেত্রে ওই সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের ওয়েবসাইটে গিয়ে নাম ঠিকানা আইডি কার্ড একাউন্ট নাম্বার ইত্যাদি তথ্য দিয়ে নতুন ডেবিট কার্ডের জন্য আবেদন  করতে পারবেন।


১. online debit card apply :

আপনি যখন নতুন ব্যাংকে এখন করতে যাবেন তখন ব্যাংকের অফিসার ডেবিট কার্ড করার জন্য আপনাকে অফার করবে অর্থাৎ ডেবিট কার্ড করার জন্য তারা আপনাকে একটা ফর্ম দেবে আপনি যদি ডেবিট কার্ড করতে চান তাহলে আপনারা সেই ফরমটি সঠিকভাবে ফিলাপ করবেন নাম ঠিকানা, ভোটের কার্ড, প্যান কার্ড, অ্যাকাউন্ট নাম্বার ইত্যাদি তথ্য দিয়ে এবং তাদেরকে জমা দিয়ে দিবেন।


তারপর ঠিক কয়েক সপ্তাহ পর পোস্ট অফিসের মাধ্যমে আপনার বাড়িতে কিন্তু debit card চলে আসবে। তো ওই ডেবিট কার্ড টা আপনারা ব্যাংকে গিয়ে বা নিকটবর্তী ATM মেশিন গিয়ে  এক্টিভেট (activate) করতে পারবেন।  তারপরে কিন্তু আপনারা খুব সহজেই এটিএম কার্ডে টাকা তুলতে এবং জমা করতে পারবেন অনলাইনে এই কার্ডের মাধ্যমে টাকা পে করে শপিং করতে পারবেন ইত্যাদি।


ডেবিট কার্ড দিয়ে কিভাবে টাকা তুলতে হয়: 

 ডেবিট কার্ড দিয়ে টাকা তোলা খুব সহজ ব্যাপার।


 Debit card দিয়ে টাকা তোলার জন্য আপনার নিকটবর্তী ATM machine এ চলে যাবেন তারপর আপনার কার্ডটি এটিএম মেশিনে প্রবেশ করাবেন।


তারপর আপনাকে ভাষা সিলেক্ট করতে হবে আপনারা অবশ্যই ভাষা সিলেক্ট করবেন তবে বেশিরভাগ ইংলিশ টা কে সিলেক্ট করে।


তারপর আপনাকে পিন নম্বর দিতে হবে তো আপনারা অবশ্যই আপনার ডেবিট কার্ডের পিন নাম্বারটি দিয়ে দিবেন। তারপর continue অপশনে ক্লিক করবেন।



 তারপর withdraw অপশনে ক্লিক করবেন (যেহেতু কিভাবে টাকা তুলতে হয় সেই প্রসেস আপনাদেরকে দেখাচ্ছি তাই এই অপশন এ ক্লিক করবেন)


আপনার Bank অ্যাকাউন্টটি  savings না current সেটি সিলেক্ট করবেন । তারপর  receipt পাওয়ার জন্য yes  এ  ক্লিক করবেন।


তারপর লাস্ট পর্যায়ে আপনারা কত টাকা তুলতে চান সেটা আপনারা সেটা লিখবেন তারপর correct এ করবেন তারপর দেখবেন যে ওই এটিএম মেশিন থেকে টাকা বেরিয়ে আসবে।


ডেবিট কার্ডের সুবিধা : 

আসুন ডেবিট কার্ড ব্যবহারের কি কি সুবিধা রয়েছে সেগুলো জেনে নেই


১. ডেবিট কার্ডের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ প্রধান সুবিধা হলো আপনাকে ব্যাংকে গিয়ে লাইন দিয়ে টাকা তুলতে হবে না আপনি যে কোন এটিএম মেশিনে গিয় টাকা তুলতে বা জমা করতে পারবেন।


২. ডেবিট কার্ড থাকাটা আপনার জন্য খুব নিরাপদ। ধরুন আপনি কোন জায়গায় ঘুরতে গেলেন তো আপনি অনেক টাকা সঙ্গে করেন না নিয়ে গিয়ে নিজের কাছে একটি ডেবিট কার্ড রাখলেন পরবর্তী করলে যে কোন এটিএম মেশিনে গিয়ে ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন।


৩. ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে আপনারা অনলাইনে টাকা পেমেন্ট করে কেনাকাটা করতে পারবেন যেটি বর্তমানে খুবই জনপ্রিয়। আমরা কিন্তু অনেকেই Amazon Flipkart daraj ইত্যাদি জায়গা থেকে এই কার্ডের মাধ্যমে টাকা পেমেন্ট করে শপিং করে থাকি।


৪.  এই কার্ডের মাধ্যমে টাকা তুললে আপনি এসএমএস এর মাধ্যমে কত টাকা কখন তোলো ইত্যাদি বিষয়ে জানতে পারবেন।


ডেবিট কার্ডের বাৎসরিক চার্জ কতো : 

ভারতে বেশিরভাগ ব্যাংক কিন্তু ডেবিট কার্ডের জন্য বাৎসরিক চার্জ নেই হাতেগোনা কয়েকটি ব্যাংক বাদে। 


যেমন  SBI, HDFC, PNB, Axis bank ইত্যাদি ব্যাংকের ডেবিট কার্ডের বাৎসরিক চার্জ 150 - 200 টাকা পর্যন্ত। HDFC ব্যাংকের ডেবিট কার্ড চার্জ সবথেকে বেশি।  তবে ICICI ব্যাংক debit card জন্য চার্জ নেয় না।


আশা করি আজকে রাতে কাল থেকে আপনারা ডেবিট কার্ড কিভাবে করব ডেবিট কার্ড ব্যবহারের নিয়মডেবিট কার্ড কি কাজে লাগে ইত্যাদি বিষয়ে জানতে পারলেন।


debit card কি নিয়ে এই আর্টিকেলটি কেমন লাগলো অবশ্যই নিচে থাকা কমেন্ট বক্সে আপনাদের মতামত জানাতে পারেন ধন্যবাদ।

Please do not enter any spam link in the comment box.

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post

Ads

Ads