কম্পিউটার কি ? কম্পিউটারের ইতিহাস ? (what is computer ? history of computer in Bengali)

 আমরা কিন্তু প্রত্যেকেই কম্পিউটার নামটা শুনেছি দেখেছি। বর্তমানে তথ্যপ্রযুক্তির যুগে কম্পিউটার ব্যবহারের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে।


শিক্ষা ,শিল্প ,ব্যবসা সব জায়গায় কম্পিউটারের দৈনন্দিন ব্যবহার বাড়ছে। অনলাইনে যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্যতম মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে কম্পিউটার।


যেকোন ব্যাংক কিংবা অফিসে কম্পিউটার ছাড়া কাজ করাই অসম্ভব।  


বর্তমান যুগে কম্পিউটারের যুগ বলা হয়। কিন্তু  কম্পিউটার কি ? Computer ইতিহাস ?  আমরা কিন্তু অনেকেই জানেনা


আজকের পোষ্টে মূলত কম্পিউটার কি (what is computer) ? কম্পিউটার কাকে বলে  (Computer meaning)? কম্পিউটারের জনক কে (Who is father of computer) ? কম্পিউটারের ইতিহাস প্রভৃতি  বিষয় গুলো আলোচনা করব সুতরাং আপনারা এটি মনোযোগ সহকারে পড়ার চেষ্টা করুন।



কম্পিউটার কি ? কম্পিউটারের ইতিহাস



কম্পিউটার কি ? (what is computer in bengali) :

কম্পিউটার হল এক ধরনের electronic device কম্পিউটার শব্দটি নেওয়া হয়েছিল Compute নামে এক ধরনের গ্রিক শব্দ থেকে যার অর্থ হলো ক্যালকুলেশন করা বা হিসাব করা।


আগে কম্পিউটার শুধু গণনার কাজে ব্যবহার করা হলেও বর্তমানে কম্পিউটার বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা হয়। কম্পিউটার খুব দ্রুতগতিতে গণনা করতে পারে এবং  বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে তা বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে আমাদেরকে উপস্থাপন করে।


কম্পিউটার কাকে বলে ?


কম্পিউটার হলো অতি দ্রুত গতি সম্পন্ন একটি যন্ত্র যা নির্দিষ্ট কোনো প্রোগ্রামের উপর নির্ভর করে বিভিন্ন রকমের গাণিতিক ও যৌক্তিক কাজ করতে পারে তাকে কম্পিউটার বলে 



কম্পিউটার কে আবিষ্কার করেন :  


ইংল্যান্ডের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিতের অধ্যাপক চার্লস ব্যাবেজ (Charles Babbage) আঠার ১৮২৩ সালের ডিফারেন্স ইঞ্জিন (difference engine) নামে এক ধরনের যন্ত্র আবিষ্কার করেন। এটি মূলত গাণিতিক হিসাব করার জন্য আবিষ্কার করেছিলেন।


তারপর তিনি এই difference engine  কে আরো উন্নতি করার লক্ষ্যে ১৮৩৪ সালে এনালিটিক্যাল ইঞ্জিন (analytical engine) আবিষ্কার করেন যেটা সাথে বর্তমান কম্পিউটারের ইনপুট আউটপুট ও প্রসেসিং এর মিল পাওয়া যায় এজন্য Charles Babbage কে  কম্পিউটারের জনক বলা হয় (Father of Computer)



কম্পিউটারের ইতিহাস (Computer History in bengali): 


কম্পিউটার হচ্ছে  যুগ যুগ ধরে বিশ্বের বিভিন্ন বিজ্ঞানীর সম্মিলিত প্রচেষ্টর সুফল ।  ১৮২২ খ্রিস্টাব্দে চার্লস ব্যাবেজ কম্পিউটার তৈরি করার জন্য যে নীতি ও প্রযুক্তি প্রয়োগ করেছিলেন পরবর্তীকালে বিভিন্ন বিজ্ঞানীরা সেই নীতি ও প্রযুক্তিকে অনুসরণ করেছিলেন বলেই আমরা এত উন্নত কম্পিউটার পেয়েছি।


বিশ্বের প্রথম কম্পিউটারের নাম হল অ্যাবাকাস (abacus) যেটি পাওয়া গেছিল চীন দেশে আজ থেকে প্রায় ৫ হাজার ৮ বছর আগে । এটিক গণনার কাজে ব্যবহার করা হতো। তবে এটি নিয়ে অনেক বিজ্ঞানীদের confusion রয়েছে। 


•  ১৬১৭ খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী জন নেপিয়ার (John Napier) napier's boneআবিষ্কার করেন নেপিয়ারস বোন (napier's bones) এর সাহায্যে দুটি বড় সংখ্যা গুন করা হতো।


• ১৬২০ আবিষ্কার হয় স্লাইড রুল (slide rule) এটি নেপিয়ারস নীতির উপর ভিত্তি করে বানানো হয়েছিল এর সাহায্যে গুণ, ভাগ, বর্গমূল করা যেত।


• ১৬৪২ সালে আবিষ্কার হয় পাস্কাল ক্যালকুলেটর (Pascal's calculator) এটি আবিষ্কার করেন বিজ্ঞানী পাশকাল ।  এটি হলো বিশ্বের প্রথম ক্যালকুলেটর এর সাথে যোগ বিয়োগ ও গুন ভাগ করা যেত।


• ১৮০৪ খ্রিস্টাব্দে আবিষ্কার হয় jacquard loom এটি আবিষ্কার করেছিলেন Joseph jacquard এটি বিশ্বের প্রথম কম্পিউটার যেখানে  পাঞ্চকার্ড ব্যবহার করা হয়েছিল।


• ১৮২২ সালে বিজ্ঞানী চার্লস ব্যাবেজ কম্পিউটার জগতের সব থেকে বড় পরিবর্তন আনেন । চার্লস ব্যাবেজ তিনি একটি কম্পিউটার বানিয়ে ছিলেন যার নাম ডিফারেন্স ইঞ্জিন । এই কম্পিউটারে আমরা প্রথম তথ্য সঞ্চয় এর ধারণা পায়।


•  ১৮৩৪ সালে চার্লস ব্যাবেজ ডিফারেন্স ইঞ্জিন কে উন্নতি করার লক্ষ্যে আরেকটি কম্পিউটার আবিষ্কার করেন যার নাম Analytical  ইঞ্জিন যার সাথে বর্তমান কম্পিউটারের input output process ধারণাটি জানা যায়।


•  ১৯৪৪ সালে এক বিসাল বড়ো মাপের কম্পিউটার আবিষ্কার হয় যার নাম mark - I এটি আবিষ্কার হাওয়ার্ড এইকিন (Howard Aiken)  তিনি কম্পিউটার জগতের এক বিশাল পরিবর্তন এনেছিলেন এবং চার্লস ব্যাবেজের অসমাপ্ত কাজগুলোর বাস্তবায়নেই কম্পিউটারে দেখা যায় এটি হলো প্রথম ইলেকট্রনিক মেকানিকাল কম্পিউটার।


•  ১৯৪৬ সালে John Muchly ও Presper Eckert তারা একটি কম্পিউটার আবিষ্কার করেন  নাম ছিল ইউনিভ্যাক (Univac)  করেছিলেনএটি হলো বিশ্বের প্রথম সম্পুর্ন ইলেকট্রনিক কম্পিউটার ।


তারপর আস্তে আস্তে কম্পিউটার  জগৎ-এর তুমুল পরিবর্তন হতে থাকে  কম্পিউটার  এর ব্যবহার সবক্ষেত্রে বাড়তে থাকে এবং সময় যত এগোচ্ছে অত্যাধুনিক কম্পিউটার ও  কিন্তু প্রতি মুহূর্তে লঞ্চ হচ্ছে।  


তো এই ছিল কম্পিউটারের ইতিহাস আশা করি আপনারা কম্পিউটারের ইতিহাস ব্যাপারটি ভালোভাবে বুঝতে পেরেছি আপনাদের কোন অসুবিধা হলে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ধন্যবাদ।





Please do not enter any spam link in the comment box.

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post

Ads

Ads